ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শাস্তি ঘোষণার পর স্ট্যাটাসে যা বললেন চমক

অভিনেতা আরশ খান ও নির্মাতা আদিব হাসানের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় শাস্তি ঘোষণা করা হয়েছে অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমকের বিরুদ্ধে। অভিনয়শিল্পী সংঘের রায়ে জরিমানা প্রদান এবং আনুষ্ঠানিক ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাকে। শাস্তি ঘোষণার পর পরই সামাজিকমাধ্যমে কারও নাম উল্লেখ না করে দুটি পোস্ট দিয়েছেন এ অভিনেত্রী।

এর কিছুক্ষণ পরই আরও একটি স্ট্যাটাস দেন অভিনেত্রী চমক। যেখানে অনেকটা কবিতার মতো করে তিনি লিখেছেন,
‘দিনশেষে সব দোষ নন্দ ঘোষের।
আনন্দ বাবু তো তুলসীপাতা,
তাও আবার ধোঁয়া,
যায় না তাকে ছোঁয়া।
নন্দ ঘোষের মুখে তালা,
ভয়ভীতিও আছে,
পাছে সবাই করে ছিঃ ছিঃ তারে,
কেটে দেয় তার ডালপালা,
যদিও একটু বাড়ে।
থাক, এবার না হয় বাঁচুক প্রাণ,
কে নেবে, যদি রাখে ঈশ্বর মানীর মান।
দুষ্ট লোক এবার দিলেও ফাঁকি,
মনে রেখ, তার হিসাব রইল শখানেক বাকি।’

এদিকে চমকের এই স্ট্যাটাসের সঙ্গে অনেকে সহমত পোষণ করেছেন। তবে নেটিজেনদের একাংশ মনে করছেন, চমকের বিরুদ্ধে টিভি নাটকের সংগঠনের দেওয়া রায় ও অভিযোগকে কেন্দ্র করে স্ট্যাটাস দুটি দিয়েছেন তাদের প্রিয় তারকা।

এর আগে অভিনেতা এবং নির্মাতার বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ ও দ্বন্দ্বের অবসানের জন্য টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টেলিপ্যাব), ডিরেক্টরস গিল্ড ও অভিনয় শিল্পী সংঘ—এই তিন সংগঠনের আলোচনায় নিজের কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত হন চমক। পাশাপাশি অভিনেতা মাসুম বাশার ও আরশ খানের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন।

শিল্পী-নির্মাতারা জানিয়েছিলেন, ভুল স্বীকার করে জরিমানা দেওয়ার মাধ্যমে চমকের বিষয়টি শেষ করতে নারাজ ছিল ডিরেক্টরস গিল্ড। পরে রাতে সমন্বিত সভা থেকে একপ্রকার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সেখান থেকে বেরিয়ে যায় নির্মাতাদের সংগঠনের নেতারা। এর পর সেখানে উপস্থিত থাকা সংবাদমমাধ্যমকর্মীদের একপ্রকার উপেক্ষা করেই আরশ ও চমককে নিয়ে নিজেদের কক্ষে চলে যান শিল্পী সংঘের নেতারা।

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪