ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বকশীগঞ্জে দশানী নদীতে নিখোঁজের ২০ ঘন্টা পর শিশুর মরদেহ উদ্ধার

জামালপুরের বকশীগঞ্জে দশানী নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া এক শিশুকে ২০ ঘন্টার পর মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল।
রোববার (২২ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১ টায় মেরুরচর ইউনিয়নের টুপকারচর ব্রিজের পাশে দশানী নদী থেকে মেহেদী হাসান মুরাদ (৭) নামে ওই শিশুর মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। শিশু মুরাদ মেরুরচর ইউনিয়নের নতুন টুপকারচর গ্রামের শাহীন মিয়ার ছেলে।
বকশীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার তুহিনুল হক জানান, শনিবার দুপুরে বাবা শাহীন মিয়ার সঙ্গে টুপকারচর ব্রিজের পাশে একটি ধান ক্ষেত দেখতে যায় মেহেদী হাসান মুরাদ। বিকাল ৩ টায় বাবার অগোচরে স্থানীয় কয়েকজন ছেলের সঙ্গে ক্ষেতের পাশেই দশানী নদীতে গোসল করতে যায় সে।
এক পর্যায়ে সে নদীতে নিখোঁজ হলে তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও না পেলে জামালপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দলকে খবর দেওয়া হয়।

জামালপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দলের লিডার ছানোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে একটি ডুবুরী দল বিকাল ৫ টা থেকে শনিবার রাত ৮ পর্যন্ত নদীতে খোঁজাখুঁজি করে পায়নি।
পরদিন সকাল ৭ টা থেকে ওই ডুবুরী দল আবার উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করলে রোববার (২২ অক্টোবর) সাড়ে ১১ টায় শিশু মুরাদকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন। এদিকে শিশু মুরাদের মৃত্যুর পর থেকে তার পরিবারে শোকের মাতম চলছে।বকশীগঞ্জ থানার ওসি মো. সোহেল রানা , ২০ ঘন্টা পর শিশু মুরাদের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪