ঢাকা, সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পুলিশ সদস্য হত্যা মামলায় গ্রেফতার খসরু,১০ দিনের রিমান্ড চাইবে ডিবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে পুলিশ কনস্টেবল আমিরুল হত্যা মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করবে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

শুক্রবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর মিন্টু রোডে ডিবি কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা জানান ডিবি প্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

তিনি বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরুকে আমরা অনেকদিন ধরে খুঁজছিলাম।

তিনি একটি বাসায় পালিয়ে ছিলেন, সেখান থেকে আমরা গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করেছি। পুলিশ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পল্টন থানায় দায়ের করা মামলায় আমীর খসরু চার নম্বর আসামি।

এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

ডিবি প্রধান বলেন, ২৮ অক্টোবর প্রকাশ্য দিবালোকে আমার পুলিশ ভাইকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

এ ছাড়া আমার আরও অনেক পুলিশ ভাই ঢাকা মেডিকেল কলেজে ও রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে একজন কোমায় চলে গেছেন। হাসপাতালে গেলে দেখা যায় এ পুলিশ সদস্যদের পরিবার ও বাচ্চাদের কান্না ও আহাজারি।

তিনি বলেন, এ মামলার সব আসামিকে আইনের কাছে ধরা দিতে হবে। যারা পালিয়ে ছিল, তারা কিন্তু রক্ষা পায়নি। যারা এখনো পালিয়ে আছে, আমি মনে করি তাদের আমরা ধরে আদালতের কাছে সোপর্দ করব।

এক প্রশ্নের জবাবে ডিবি প্রধান হারুন বলেন, আমরা আজ আমীর খসরুকে আদালতে পাঠিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড চাইব। কাদের নেতৃত্বে, কাদের ইন্ধনে সেদিন হামলা হয়েছিল, কারা কারা ঘটনার সময় মঞ্চে ছিল, রিমান্ডে এনে জানার চেষ্টা করবো। হামলায় কারা ইন্ধন দিয়েছিল, সেগুলো খুঁজে বের করে আমরা গ্রেফতার করব।

তিনি আরও বলেন, ২৮ অক্টোবর এবং অবরোধের দিনগুলোতে গাড়িতে আগুন লাগানো হয়েছে, প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলা করা হয়েছে, ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় তথাকথিত অবরোধের নামে জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিঘ্নিত করা হয়েছে, অনেকগুলো বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি ঘটনার তদন্ত হচ্ছে। যারা আগুন লাগিয়েছে, তাদের নাম আমরা পেয়েছি। আমরা শিগগিরই তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসব।

ডিআই/এসকে

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪