ঢাকা, সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

‘নাশকতা ঘটিয়ে মিথ্যা পরিচয় ব্যবহার করে পালিয়ে যাচ্ছে দুর্বৃত্তরা’:র‍্যাব

গণপরিবহনসহ বিভিন্ন যানবাহনে অগ্নিসংযোগ ও নাশকতা করে দুর্বৃত্তরা নিজেদের যাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, গণমাধ্যম কর্মী বা সরকারি কর্মকর্তা বলে পালিয়ে যেতে না পারে সেটিকে সর্বস্তরের জনমানুষকে সতর্ক ও সচেতন থাকার জন্য অনুরোধ করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

সোমবার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সময়ে গ্রেপ্তাররা জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর জন্য তারা গণপরিবহন বা বিভিন্ন যানবাহনে অগ্নিসংযোগ ও নাশকতা করছে। অগ্নিসংযোগের পর তারা নিজেদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য বা গণমাধ্যমকর্মী বা সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা হিসেবে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে অগ্নিসংযোগ বা নাশকতার ঘটনা ঘটিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বাস মালিক, পরিবহন শ্রমিকসহ দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণকে এ বিষয়ে সতর্ক ও সচেতন থাকার জন্য অনুরোধ করছি। পাশাপাশি এ ধরনের ঘটনায় দুষ্কৃতকারীদের আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সোপর্দ করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, সম্প্রতি রাজনৈতিক দলগুলোর বিভিন্ন কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে কতিপয় দুর্বৃত্ত ও স্বার্থান্বেষী মহল হামলা ও নাশকতার মাধ্যমে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

গত ২৮ অক্টোবর রাজধানীতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসীরা প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলা ও ভাঙচুর, রাজধানীর কাকরাইল, পল্টন, ফকিরাপুল ও মতিঝিলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে , গণপরিবহন, ব্যক্তিগত পরিবহন, সরকারি বিভিন্ন যানবাহনে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, গণমাধ্যমকর্মীসহ সাধারণ মানুষের ওপর আক্রমণ করে।

এসব হামলায় ঘটনাস্থলের সিসিটিভি ফুটেজ, গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভিডিও ফুটেজ এবং সংশ্লিষ্ট তথ্যাদি বিশ্লেষণ করে সহিংসতা ও নাশকতার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়িয়েছে র‌্যাব।

ডিআই/এসকে

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪