বশেমুরবিপ্রবি’তে সশরীরে ক্লাস-পরীক্ষার প্রস্তুতি

90

মাহবুবুল ইসলাম মানিক,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি :
গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) একাডেমিক কাউন্সিলের ২৪ তম মিটিংয়ে হল খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ৭ অক্টোবর থেকে চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্স এর শিক্ষার্থীদের জন্য হল খোলা হবে। অন্যান্য বর্ষের জন্য হল খুলছে ২০ অক্টোবর। ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা সশরীরে পরীক্ষা দিতে পারলেও অন্যান্য বর্ষের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা এখনো শুরু হয় নি। তাই হল খোলার সিদ্ধান্তের পর শিক্ষার্থীরা দ্রুত অন্যান্য বর্ষে পরীক্ষা ও সশরীরে শ্রেণি শিক্ষা-কার্যক্রম চালুর দাবি জানাতে থাকে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে আগামী ২০ অক্টোবর হল খোলার পর বিভাগগুলো সশরীরে রিভিউ ক্লাস ও পরীক্ষা নিতে পারবে বলে জানানো হয়েছে। ইতোমধ্যে একাধিক বিভাগ বিভিন্ন বর্ষে পরীক্ষার জন্য রুটিন প্রস্তুত করে ফেলেছে, দেওয়া হয়েছে রিভিউ ক্লাসের সময়সূচিও।বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগে ১৮ অক্টোবর থেকে সশরীরে মাস্টার্স ও ২৫ তারিখ থেকে অন্যান্য বর্ষের রিভিউ ক্লাস নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।
এ বিষয়ে মার্কেটিং বিভাগের চেয়ারম্যান তাপস বালা বলেন, “মাস্টার্স এর জন্য হল খুলবে ৭ অক্টোবর। আমরা ২৪ তারিখ থেকে পরীক্ষা নিতে চাচ্ছি মাস্টার্স এর শিক্ষার্থীদের। তাই তাদের ১৮ তারিখ থেকে সশরীরে রিভিউ ক্লাস ও অন্যান্যদের ২৫ তারিখ থেকে রিভিউ ক্লাস নিয়ে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে অন্যান্য বর্ষের পরীক্ষা নিতে চাচ্ছি। রবিবার বিভাগের একাডেমিক মিটিং করে রুটিন দিয়ে দিবো।”সশরীরে ক্লাস ও পরীক্ষার বিষয়ে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান ও বিজনেস অনুষদের ডিন ড. রোকনুজ্জামান বলেন, “আমাদের অলরেডি রুটিন করা হয়েছে অন্যান্য বর্ষের জন্য। যেটা নোটিশ বোর্ডে দেওয়া হয়নি। আর একটি অতিরিক্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যাকে বলছি ‘প্রোবলেম সলভড বেসড রিভিউ ক্লাস’। হল খোলার পর শিক্ষার্থীরা তাদের প্রয়োজনীয়তা অনুসারে কোর্স টিচারের সাথে যোগাযোগ করে রিভিউ ক্লাসে অংশ নিতে পারবে।”পরীক্ষা ও ক্লাস কার্যক্রম শুরু করার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও এসিসিই বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, “হল খোলার পর বিভাগ চাইলে রিভিউ ক্লাস-পরীক্ষা নিতে পারবে। আমরা হল খোলার পরপরই ক্লাস-পরীক্ষা নিয়ে নিবো ইনশাআল্লাহ।”এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মোরাদ হোসেন বলেন, “হল খোলার পর যেসব বিভাগে রিভিউ ক্লাসের প্রয়োজন হবে, তারা রিভিউ ক্লাস নিয়ে পরীক্ষা নিতে পারবে। কোনো বিভাগের রিভিউ ক্লাসের প্রয়োজন না হলে, তারা সরাসরি পরীক্ষা নিতে পারবে।শিক্ষা কার্যক্রম পুনরায় শুরুর করার বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের উচ্ছাসও বাধভাঙ্গা।বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সিফাত সাব্বির বলেন, “দীর্ঘ একটা সময় বন্ধ থাকর পর হল খোলার সিদ্ধান্ত এসেছে, অন্যান্য বর্ষের পরীক্ষাও নিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় বলে জেনেছি। এ খবরে অনেক আনন্দিত হয়েছি। বিশেষ করে প্রশাসন এর এই সিদ্ধান্তের কারণে আমাদের শিক্ষার্থীদের একটা দ্বিধান্বিত অবস্থা থেকে আমরা আশা ফিরে পেয়েছি।
এখন খুব তাড়াতাড়ি পরীক্ষা গুলো নেয়ার ব্যবস্থা করলে দীর্ঘসময় বন্ধ থাকার কারণে আমরা যে পিছিয়ে পড়েছি তা কাটিয়ে তোলা কিছুটা হলেও সম্ভব হবে।”মার্কেটিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সজল আহমেদ বলেন, “পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা শুনে আমি খুবই উচ্ছ্বসিত। কেননা এতদিন দোটানায় ছিলাম। আসলে কবে পরীক্ষা হবে সেটাও জানতাম না। আবার ক্লাসে ফিরতে পারবো শুনে খুবই ভালো লাগছে।”

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •