ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

দশমিনায় আগুনে পুড়ে ৫টি দোকান ঘর ছাই

সবাই যখন দিনের ব্যস্ততা শেষে হালকা হালকা শীতের রাতে বাসায় ফিরে ঘুমিয়ে পড়ার কথা ঠিক তখন’ই বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটে ভাগ্যক্রমে আগুন লেগে পুড়ে যায় পটুয়াখালী দশমিনা উপজেলার রনগোপালদী ইউনিয়নের আউলিয়াপুর বাজারের পাঁচটি দোকান। গতকাল ( ৭ নভেম্বর )রোজ সোমবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে এঘটনা ঘটে।

স্থানীয় এবং ব্যবসায়ীরা বলেন, সকল দোকানদার বন্ধ করে বেচা বিক্রি শেষে বাড়ি চলে গেছে। রাত প্রায় সাড়ে ১০টা তখনই বাজার থেকে হঠাৎ আগুন আগুন বলে ডাক চিৎকার শোনা যায়। দৌঁড়ে এসে দেখলাম আগুনের লেলিহান মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে। এতে একটি কসমেট্রিকস্ দোকান,একটি জাল সুতার দোকান,এবং দুটি মুদি দোকান ও একটি চায়ের দোকান পুড়ে যায়। তাৎখনিকভাবে দশমিনা ফ্যায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স কে জানানো হলে তারা আসার আগে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে স্থানীদের সহায়তায় ফ্যায়ার সার্ভিস ১ ঘন্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হলে ততক্ষনে সব পুড়ে ছাই হয়ে যায় ।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে মহসিন মাতব্বর,মোফাজ্জেল মাতব্বর,ইমরান কাজী, সাখাওয়াত মাতব্বর ও মুজাফ্ফার খানসহ পাঁচটি দোকানে কয়েক লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ফ্যায়ার সার্ভিসের দায়ীত্বে থাকা আনোয়ার হোসেন বলেন,খবর পেয়ে সাথে সাথেই ঘটনাস্থলেই চলে এসেছি পরে ১ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এবং প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যতিক সর্ক সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।

খবর পেয়ে সাথে সাথে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাফিসা নাজ নীরা ও উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) ওয়াসিউজ্জামান চৌধুরী। ভাইস চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন পালোয়ান। এবং এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাফিসা নাজ নীরা বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রনালয় কর্তৃক সাত হাজার টাকা করে অর্থ সহায়তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪