ঢাকা, শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুড়িগ্রামে বসতবাড়ীর তালা ভেঙ্গে মালামাল চুরির,গ্রেফতার ৩

কুড়িগ্রামে চোরাই মালামাল উদ্ধারসহ বসতবাড়ীর তালা ভেঙ্গে মালামাল চুরির মূলহোতা ৩ চোরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার ( ২১ অক্টোবর ) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিডিয়া মো. রুহুল আমীন।

তিনি জানান গত ( ১৮ অক্টোবর ) রাতে বাদী তার বাসার দরজা ও গেটে তালা লাগিয়ে পরিবারের সকল লোকজন মিলে উলিপুরের বজরা এলাকায় বোনজামাই এর জানাযায় অংশগ্রহণ করার উদ্দেশ্যে যায়। পরেরদিন নিজ বাসায় ফেরত এসে দেখতে পায় তাদের বাসার গেটের তালা ও রুমের তালা ভাঙ্গা এবং ঘরের আসবাবপত্র এলোমেলো ও তাদের বিভিন্ন মালামাল ঘরে নেই।

পরবর্তীতে উলিপুর থানার অজ্ঞত চোরদের নামে মামলা রুজু হওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাবে উলিপুর থানা পুলিশের একটি চৌকস টিম মামলার তদন্তে স্থানীয় লোকজনদের জিজ্ঞেসাবাদে কিছু লোকের উক্ত বাসার আসেপাশে গত কিছুদিন সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরার তথ্য পাওয়া যায়। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে উলিপুর থানার অনুসন্ধানে চোর চক্রের মূলহোতা উলিপুর পৌরসভাধীন জোনাইডাঙ্গা গ্রামের মো. ফারুক হোসেন (৩২) , মো. খোকন মিয়া (৪২) ও উলুপুর হাতিয়া ইউপি এর ডোবারপাড় এলাকার মো. আ. হাকিম (৪৮) নামে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের দেখানো মতে চোরাইকৃত ছোট পানির পাম্প ১টি, গ্যাসের চুলা-১টি, লাল রংয়ের ছোট বাই সাইকেল-১টি, এলইডি মনিটর-২টি, গ্যাস সিলিন্ডার-১টি, স্বর্ণের আংটি-১, কম্বল ২টি, স্টাবলাইজার-১টি, পানির ফিল্টার-১টি, ব্লেন্ডার-১টি, মেলামাইন প্লেট-১৩টি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীরা আন্তঃজেলা চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য তারা বিভিন্ন সময়ে বাসার মালিকদের অনুপস্থিতিতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে বাসার তালা ভেঙ্গে বিভিন্ন মালামাল চুরি করে পালিয়ে যেতো। পরবর্তীতে মামলা ও অভিযোগের ভিত্তিতে তার সকল তথ্য সংগ্রহ করে চোরাই মালামাল উদ্ধারসহ চোরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ। নিরাপদ কুড়িগ্রামের লক্ষ্যে ও অপরাধ দমনে আমাদের অভিযান অব্যহত রয়েছে। আমরা সকলের সম্মিলিত সহযোগিতা কামনা করি।

এভাবেই কুড়িগ্রাম জেলায় সংঘটিত অপরাধ দমন ও সম্মানিত নাগরিকদের টেকসই নিরাপত্তার নিমিত্তে সদা জাগ্রত কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ।

ডিআই/এসকে

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪