ঢাকা, সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

উপজাতী সন্ত্রাসীদের চাঁদা না দেওয়ায় পর্যটকবাহী বোটে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক রাঙ্গামাটি:: পার্বত্য জেলার রাঙ্গামাটি কাপ্তাই লেকে ঘুরতে গিয়ে পর্যটন বাহী বোটে আগুন দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। উপজাতী সন্ত্রাসীদের চাঁদা না দেওয়ায় পর্যটকবাহী বোটে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটায়। তার আতঙ্কে আছে অন্যান্য পর্যটকরা। এই ঘটনার পর অস্ত্রধারী সন্ত্রীদের বিরুদ্ধে এই পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

চাঁদা নিলে পর্যটক যাবে না। এভাবে সন্ত্রসী চাঁদাবাজী হলে পর্যটকরা পর্যটন এলাকা পরিদর্শন করবে না। ক্ষতিগ্রস্ত হবে পর্যটন এলাকা।

জানা গেছে, চাঁদপুর জেলা থেকে একটি পর্যটক দল রাঙামাটিতে বেড়াতে আসে। প্রথমে তারা পর্যটন নগরী সাজেকে ঘুরে রাঙামাটি শহরে ফিরে আসে। এরপর শুক্রবার সকালে কাপ্তাই হ্রদের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বরকল উপজেলার সুবলং ঝরণা দেখতে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা তাদের বহন করা বোটটি আটক করে সবার কাছে থাকা মোবাইল ছিনিয়ে নেয় এবং বোট থেকে নামিয়ে দেয়। পরে বোটে আগুন দেয়।

বোট চালক গিয়াস জানান, যারা বোটে আগুন দিয়েছে তাদের সকলের হাতে অস্ত্র ছিলো। তাদের নাম, পরিচয় জানা যায়নি। তবে তারা চলে যাওয়ার সময় পর্যটকবাহী বোট চাঁদা না দিয়ে এ এলাকা দিয়ে যেন চলাচল না করে সেই ব্যাপারে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে। এরপর বোট চালক আরেকটি বোট নিয়ে পর্যটকদের রাঙামাটি নিয়ে আসে।

স্থানীয় রাঙ্গামাটি তবলছড়ি বোটের মালিক ইলিয়াস নামে এক ব্যক্তি বলেন, এভাবে যদি বোটে আগুন দেয়। তাহলে বোট মালিকরা বোট ভাড়া দিবে না। এতে রাঙ্গামাটি ব্যবসা বানিজ্যে ক্ষতি সাধিত হবে। তাই প্রশাসন চাঁদাবাজ প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

কোতয়ালি থানার অফিসার ইনর্চাজ আরিফুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১০ নভেম্বর ২০২৩) দুপুরে হ্রদের কাইন্দারমুখ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আগুন দেয়ায় ব্যপক ক্ষয় ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এমন হলে অন্যান্য পর্যটকরা লেকে বিভিন্ন উপজেলায় ঘুরতে যাবে না। পর্যটন এলাকার ব্যপক ক্ষতি হবে। এই নিয়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪