ঢাকা, সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ বাংলাদেশ-ভারত ফাইনাল

ডেস্ক রিপোর্ট:
শিরোপা অক্ষুণ্ণ রাখার অভিযানে মেয়েদের সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে আজ ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ঢাকার কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে মহারণ।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় নাকি ভারতের প্রথম? বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সাফ অনূর্ধ্ব ১৯ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের পর পাওয়া যাবে এই উত্তর। তবে ফলাফল যাই হক ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দিতে মুখিয়ে আছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

ফুটবলে সাফল্যের গল্প মানেই তার রুপকার বাংলাদেশের নারী ফুটবল। যার বেশিরভাগ সাফল্য এসেছে বয়সভিত্তিক আসরগুলোতে। আর এখানে মেয়েরা আরও ধারাবাহিক। সর্বশেষ ২০২১ সালে এই ভারতকে হারিয়ে শিরোপা উচিয়ে ধরে বাংলার মেয়েরা।

দুই বছর পর অনূর্ধ্ব-১৯ সাফের ফাইনালে আবারও প্রতিপক্ষ ভারত। দু’দলের দ্বৈরথের ভেন্যুটাও অপরিবর্তিত। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স কিংবা সার্বিক বিবেচনায় স্বাভাবিকভাবে এগিয়ে স্বাগতিকরা। তবে কোচ এটা মানতে নারাজ। পুরানো দল কিংবা পুরানো মঞ্চ হলেও দুই দলের ফুটবলাররা অনেকেই নতুন। এমনকি অনূর্ধ্ব-১৭ নারী বিশ্বকাপে খেলা ফুটবলার রয়েছে ভারতের এই দলে।

কোচ সাইফুল বারী টিটু বলেন, ‘কখনোই বলতে পারবেন না যে আপনি চ্যাম্পিয়ন হবেন বা এগিয়ে আছেন। কারণ প্রতিপক্ষকে সম্মানটা দিতে হবে। বিশেষ করে ভারতের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ খেলা কিছু খেলোয়াড় আছে। ওরা ইউরোপের দলের সাথে খেলেছে। যেটা আমাদের মেয়েরা খেলেনি।’

চলতি আসরে গ্রুপ পর্বে ম্যাচে ভারতের সাথে শেষ মুহূর্তে জয় পেয়েছে আফিদা-সাগরিকারা। তাইতো ফাইনালের আগে অনুশীলনে বেশ সতর্ক সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। পেনাল্টি শ্যুট আউটের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

টিটু আরও বলেন, ‘আমাদের যেমন আগের সব খেলোয়াড় নাই, তাদেরও নাই। এজন্য এটা অন্যরকম একটা দিন। তাই মরিয়া হওয়াটা জরুরি।’

প্রতিপক্ষ হিসেবে সব সময় ভারত কঠিন। এমনকি চলতি আসরে সবচেয়ে বেশি গোলও দিয়েছে সফররতরা। তবে এসব নিয়ে ভাবছেন না অনূর্ধ্ব-১৯ নারী দলের অধিনায়ক আফিদা খন্দকার। খেলতে চান নিজেদের স্বাভাবিক খেলা।

আফিদা বলেন, ‘আমরা যতটা কঠোর পরিশ্রম করেছি তার উপর আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে। আর আত্মবিশ্বাসী হয়েই মাঠে নামবো আমরা।’

বয়সভিত্তিক ফুটবলে মেয়েরা নিয়মিত সাফল্য পেলেও এখন পর্যন্ত শিরোপা ধরে রাখার নজির নেই। এবার সেই পুরানো প্রথা ভেঙ্গে শিরোপা ধরে রাখাবে বাংলাদেশ এমনটা প্রত্যাশা ফুটবল সমর্থকদের।

ফাইনালে যদি নির্ধারিত ৯০ মিনিটের মধ্যে ফলাফল না আসে, সেক্ষেত্রে টুর্নামেন্টের বাইলজ অনুযায়ী সরাসরি টাইব্রেকার হবে। এ প্রসঙ্গে স্বাগতিক দলের কোচ সাইফুল বারী টিটু বলেন, আমি মেয়েদের পেনাল্টি শুটআউট অনুশীলন করিয়েছি।

খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি ওয়ার্ল্ড । অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ইউটিউব চ্যানেল স্পোর্টজ ওয়ার্কজ  এবং টফি অ্যাপেও ম্যাচটি দেখা যাবে। বাংলাদেশ বেতার খেলার চলতি ধারাবিবরণী প্রচার করবে।

 

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ সকালের খবর ২৪